মানুষের মধ্যেও এক ধরনের শয়তান রয়েছে

পবিত্র কোরআনের সর্বশেষ আয়াত হচ্ছে সুরা নাসের শেষ আয়াত। এই আয়াতে আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বান্দাদেরকে মানুষ শয়তান ও জ্বীন শয়তান থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনার নির্দেশ দিয়েছেন।

এ থেকে প্রতীয়মান হয়। মানুষের মধ্যেও এক ধরনের শয়তান রয়েছে। যারা মানুষকে কুমন্ত্রণা দিয়ে থাকে। তাই রমজানে জ্বীন শয়তানকে বন্দি রাখা হলেও মানুষরূপী শয়তানদের কার্যক্রম অব্যাহত থাকে। যারা শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ করে মানুষের মনের ভিতর জঘন্য ওয়াসওয়াসা সৃষ্টি করতে পারে।

রমজানের প্রতিটা মূহুর্ত এতটাই বরকতময় যে। একটি ফরজ আদায় করলে ৭০ টি ফরজ আদায়ের সওয়াব রয়েছে। আমাদের প্রতিদিনের হায়াতের ক্ষণ হচ্ছে ৮৬ হাজার ৪০০ সেকেন্ডের। অথচ এর মাত্র ১টি সেকেন্ড পাওয়ার জন্য কোটি কোটি মৃত প্রানগুলো প্রতিনিয়ত হায় আফসোস করে চলেছে।

আর আমরা উল্টা এই অমূল্য সময়গুলোকে অহেতুক নষ্ট করছি নানান অপ্রয়োজনীয় ইস্যুর গালগল্প নিয়ে।
আরবীতে একটি প্রবাদ আছে, ‘সময় সে তো জীবন, সুতরাং তাকে হত্যা করো না।’ আল্লাহ আমাদেরকে রমজানের বরকতময় প্রতিটা মুহুর্তের মূল্য অনুধাবন করে এর সঠিক ব্যবহার করার তওফিক দান করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.